“মোদি জি, বিহারে মারা যাওয়া শিশুরা ভারতের পাকিস্তানের নয়, আপনি চুপ কেন?” RJD নেতা

149
মোদি জি, বিহারে মারা যাওয়া শিশুরা ভারতের পাকিস্তানের নয়, আপনি চুপ কেন? RJD নেতা
মোদি জি, বিহারে মারা যাওয়া শিশুরা ভারতের পাকিস্তানের নয়, আপনি চুপ কেন? RJD নেতা

পিপিএন বাংলা, নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিহারের ক্রমাগত খারাপ স্বাস্থ্যসেবার বিষয়ে নীরবতা পালন করছেন! একই সাথে, উত্তর প্রদেশের ক্রমাগত বিগড়ে যাওয়া আইন ব্যবস্থায়তেও চুপ আছেন। একটা বিষয় হল যে প্রত্যেক সমস্যার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে দোষারোপ করা ঠিক নয়। কিন্তু এটাও সত্য, যে কোনো ছোট্ট ঘটনার বিষয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিক্রিয়া দেখানো নারেন্দ্র মোদি এই বিষয়ে কেন নীরবতা পালন করছেন।

লোকসভা নির্বাচনের সময় প্রধানমন্ত্রী মোদি বিহারে ১৩ বার প্রচারে এসেছিলেন। ননির্বাচনী প্রচারে মোদি তাঁর ভাষণে ভালো চিকিৎসা ও শিক্ষার কথা বলেছিলেন। এটাও সত্য যে আয়ুমান ভারত যোজনার নামে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও তার দল বিহারে অনেক ভোট পেয়েছে। এই অবস্থায়, যখন শিশুরা মারা যাচ্ছে, তখন নরেন্দ্র মোদি জনসাধারণের জন্য চিন্তাভাবনা বা তাদের মধ্যে সাহস যোগাবে এমন একটি টুইট বা বার্তা দিতে সক্ষম হননি। যেখানে বিহারে বিজেপি ও নিতিশ কুমারের গঠবন্ধন সরকার রয়েছে এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ও বিজেপির।

যদিও প্রধানমন্ত্রী এখনও নীরব রয়েছেন তবে আশা করা যাচ্ছে কিছুদিন পরে সম্ভবত সোশ্যাল মিডিয়াতে কিছু লিখবেন। কিন্তু এমতাবস্থায় প্রধানমন্ত্রী মোদিকে বিহারে গিয়ে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা উচিত এবং দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার কতটা উন্নতি করা দরকার সেই বিষয়ে নজর দেওয়া উচিত। শুধু আয়ুষ্মান ভারতের ঢাকঢোল পিটিয়ে প্রচার করলে হবে না, হাসপাতালে ওষুধ ও বিছানা প্রয়োজন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এই নীরবতাকে কেন্দ্রকরে আরজেডি নেতা অরুণ কুমার যাদব টুইটারে লিখেছেন: “প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জি , বিহারের মোজাফফরপুরে এনসেফালাইটিসে যে ১০০ জন শিশু মারা গিয়েছে তারা ভারতের, পাকিস্তানের নয়? মৃতের অধিকাংশই দরিদ্র হিন্দুদের সন্তান তবুও একটি টুইট করে সমবেদনা প্রকাশ করতে পারেনি। হয়তো এই কারণে যে এখন নির্বাচন নেই?”

Comment

Please enter your comment!
Please enter your name here