শান্ত বাংলায় মেরুকরণের রাজনীতি দুই দলের! জয় শ্রী রামে না, তৃণমূল কর্মীকে মার বিজেপির

শান্ত বাংলায় মেরুকরণের রাজনীতি দুই দলের! জয় শ্রী রামে না, তৃণমূল কর্মীকে মার বিজেপির
শান্ত বাংলায় মেরুকরণের রাজনীতি দুই দলের! জয় শ্রী রামে না, তৃণমূল কর্মীকে মার বিজেপির

পিপিএন বাংলা, নিউজ ডেস্ক: অর্জুন হালদার নামে এক তৃণমূল কর্মী ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে রাজি না হওয়ায়। নদিয়ার তেহট্টে বিজেপির হাতে আক্রান্ত হন তিনি। অর্জুন হালদারকে স্থানীয় বিজেপি সমর্থকরা বেধড়ক মারধর করেছেন বলে অভিযোগ। ওই তৃণমূল কর্মী ভরতি হাসপাতালে। তৃণমূল কংগ্রেসের তেহট্টের বেতাই বাসস্ট্যান্ড এলাকার  পার্টি অফিসের কর্মী। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, রোজ সকালে তৃণমূলের পার্টি অফিস খোলেন অর্জুন।

দিনভর পার্টি অফিসে থাকেন। রাতে দরজায় তালা ঝুলিয়ে বাড়িতে যান তিনি। তৃণমূল কর্মী অর্জুন হালদারের অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাতে যখন তিনি পার্টি অফিস বন্ধ করছিলেন, তখন বেতাই বাসস্ট্যান্ডে আসেন কয়েকজন বিজেপি সমর্থক। ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিচ্ছিলেন তাঁরা। প্রতিবাদ করেছিলেন অর্জন। তখন উলটে তাঁকেই বিজেপি সমর্থকরা ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিতে বলেন অভিযোগ। যথারীতি রাজি হননি ওই তৃণমূলকর্মী। আক্রান্তের দাবি, তাঁকে বেধড়ক মারধর করেছেন বিজেপি সমর্থকরা।

তেহট্ট ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি দিলীপ পোদ্দার এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন এবং বিজেপির নদিয়া জেলার সহ-সভাপতি অর্জুন বিশ্বাসের পালটা প্রশ্ন, ‘ ‘জয় শ্রীরাম’ বলা কি অপরাধ? বিজেপি সমর্থকদেরই বা কেন প্রতিবাদের মুখে পড়তে হবে?’ কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবের বক্তব্য, তৃণমূল কংগ্রেসের যে দেওয়া পিঠ ঠেকে গিয়েছে, এই ঘটনা তারই প্রমাণ। ঘটনার তদন্তে নেমেছে তেহট্ট থানার পুলিশ।

Comment

Please enter your comment!
Please enter your name here