লিঞ্চিং এ হত্যা সানাউলের পরিবারের জন্য ৫০ লক্ষ টাকা ও চাকরির দাবি মালদা MIM এর

লিঞ্চিং এ হত্যা সানাউলের পরিবারের জন্য ৫০ লক্ষ টাকা ও চাকরির দাবি মালদা MIM এর

আব্দুল কাদির, পিপিএন বাংলা, চাঁচোল: গত ১৮ জুন ঝাড়খণ্ডে তাবরেজ আনসারী নামের এক মুসলিম যুবককে দীর্ঘ ১৮ ঘন্টা ধরে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এবার সেই একই ভঙ্গিমায় মালদায় এক মুসলিম যুবককেও বাইক চোর সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করা হল। সেনাউল শেখকে পিটিয়ে হত্যা করা মানে বাংলার মানুষের লজ্জা। রবিবার সেনাউল এর জানাজা ও পরিবারকে সমবেদনা জানাতে এসে পিপিএন বাংলার মুখোমুখি হন মালদা জেলা মিমের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা মতিউর রহমান।

এদিন তিনি বলেন, আগে আমরা অন‍্য রাজ‍্যের গণপিটুনির ঘটনায় নিন্দা করে বলতাম, বাংলায় “মব – লিঞ্চিং ” হয় না। সেই আত্মতুষ্টিও শেষ হয়ে গেল, গত ২৬ শে জুন মালদার বৈষ্ণবনগর চকসেহর্দির কেতাব টোলার গ্রামে সেনাউল শেখকে মোটর সাইকেল চুরির অভিযোগে এমন ভাবে সবার সামনে পেটানো হয়, যার ফলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে মালদা হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। অবস্থার অবনতির কারণে তাকে আবার পি জি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। শনিবার সানাউলের সেখানেই মৃত্যু হয়।

 

তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট সচিব-এর দায়িত্ব এড়াতে পারেন না। মালদা জেলা AIMIM দাবি জানায়, মৃত্যুর কোন কিছু পরিপূরক হয় না কিন্ত সেনাউল শেখের পরিবারের জন্য মিম রাজ্য সরকারের ব্যর্থতাকে দায়ী করছে এবং 50 লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ ও পরিবারের একজনের গ্রুপ ডি চাকরি দাবি করছে। এইরকম ঘটনা বাংলায় কোনো প্রান্তে যেন আর না ঘটে সেই কারণে ভিডিও ফুটেজ দেখে দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে উপযুক্ত শাস্তি ফাঁসি দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হোক।

উল্লেখ্য যে, এমআইএম প্রতিনিধিদল নির্যাতিত পরিবারের পক্ষ হতে আইনি লড়াই করবেন বলে জানিয়েছেন। মিমের প্রতিনিধিদলে জেলা নেতা মতিউর রহমান, শহিদুল ইসলাম, রেজাউল করীম সহ জেলা ও ব্লক স্তরের নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন।

Comment

Please enter your comment!
Please enter your name here