আইনকে বুড়ো আঙুল! উত্তরপ্রদেশে মুসলিম মহিলাকে চোর সন্দেহে গাছে বেঁধে গনপিটুনি

পিপিএন বাংলা, নিউজ ডেস্ক: চুরির মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে দলিত ও মুসলিমদের উপর বেড়েই চলেছে নির্যাতন। আফ্রাজুল, জুনাইদ, পেহলুখান, আখলাক এরপর এবার এই তালিকায় যুক্ত হলো এক মহিলার নাম। তবে ঠিক সময়ে পুলিশ পৌঁছে যাওয়ায় অল্পের জন্য প্রাণ রক্ষা হয়। কথিত শিশু চোর সন্দেহে এক মহিলাকে গাছে বেঁধে পেটানো হলো উত্তরপ্রদেশের নবাবগঞ্জ এলাকার রাহেলি গ্রামে। সূত্রের খবর অনুসারে, নবাবগঞ্জ পুলিশ থানার কাছেই এই ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার।

বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশের গোন্ডা জেলার নবাবগঞ্জের রাহেলি গ্রামে গ্রামবাসীরা শিশু চোর সন্দেহে এক মহিলাকে আটক করেন। এরপরই ওই মহিলাকে গাছে বেঁধে গণপ্রহার করা হয়। পুলিশ এই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং মহিলাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে। যদিও ওই মহিলা শিশু চুরি করেছেন এরকম কোনো প্রমাণ পুলিশ পায়নি।

পুলিশ সূত্রের খবর অনুসারে, শনিবার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ খবর পাওয়া মাত্রই দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং আহত মহিলাকে উদ্ধার করে। পুলিশ আরও জানিয়েছে, এই ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে ৯ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং এঁদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

Comment

Please enter your comment!
Please enter your name here