আচ্ছে দিন! বিশ্বের পঞ্চম ধনীতম ব্যক্তি আম্বানি কিন্তু দেশের অর্থব্যবস্থা 60 বছরের সর্বনিম্ন স্তরে : সাংবাদিক

240

পিপিএন বাংলা, নিউজ ডেস্ক: ফোবর্সের তৈরি বিশ্বের সেরা ধনীদের মধ্যে পঞ্চম ধনীতম ব্যক্তি হিসাবে উঠে এলেন রিলায়েন্স চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি। সম্পত্তির নিরিখে পিছনে ফেললেন মার্কিন ধনকুবের বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ের সিইও ওয়ারেন বাফেটকে ৷ ভারতীয় অর্থনীতি গত 60 বছরে সর্বনিম্ন স্তরে নেমে গিয়েছে। এর আগে ১৪ ই জুলাই প্রকাশিত হয়েছিল যে, আম্বানি বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী ব্যক্তি, মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে তিনি ষষ্ঠ থেকে পঞ্চম স্থান দখল করলেন।

কয়েকদিন পূর্বে খবর পাওয়া গিয়েছিল যে, ১৯৬১ সালের পরে এই প্রথম ভারতীয় অর্থনীতি সর্বনিম্ন স্তরে বৃদ্ধি পাবে। আপনি কি কখনো ভেবেছেন? যে একজন ব্যক্তির কাছে কিভাবে পুরো দেশের সম্পদ ও সংস্থান জমা হচ্ছে?

যদিও ‘নিউ ইন্ডিয়া’-তে নির্বাচনী স্লোগান গুলির মধ্যে প্রকাশ পায় যে, দেশ সবচেয়ে বড়, কিন্তু বাস্তবে ওই “বস” সবচেয়ে বড়, যিনি আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রীর‌ পিঠে হাসতে হাসতে হাত রাখেন। বলা হয় কলা প্রজাতন্ত্রে এই কর্পোরেট ব্যক্তিরাই হল প্রকৃত “বস”।

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের এর আমলে এই বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা হত। কলা প্রজাতন্ত্র এবং ক্রনি ক্যাপালিজম তখনকার আলোচনার সবচেয়ে বড় বিষয় ছিল। আজকাল জাতীয়তাবাদী সরকার গোটা দেশে দেশদ্রোহী ও দেশপ্রেমিক খুঁজতে ব্যস্ত। দেশের কোষাগার জোগাতে যে চৌকিদার বসে রয়েছেন তাকে কেউ জিজ্ঞাসা করছে না যে কোষাগারটি কীভাবে খালি হয়ে যাচ্ছে?

অম্বানীর ধনী হওয়ার পেছনে কোনো অবৈধ কারণ নাও থাকতে পারে। তবে ওই আইনের উপর বিবেচনা করা উচিত যা- একজন মানুষকে আরব‌পতি করে তোলে কিন্তু আমাদের দেশে এখনও কোটি কোটি মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে।

এই নিবন্ধটি সাংবাদিক কৃষ্ণকান্তের ফেসবুক পোস্ট অনুসারে লেখা হয়েছে। সূত্র: বোলতা হিন্দুস্থান

Comment

Please enter your comment!
Please enter your name here